Egg Korma বাদশাহী ডিমের কোর্মা রান্না

Egg Korma ডিমের কোর্মা। ডিমের যে কটা রান্না হয়, তার মধ্যে অন্যতম সেরা রান্না হল কোর্মা। মাংসের কোরমা আমরা সবাই খেয়েছি। কিন্তু মাংস না থাকলে বাড়িতে খুব সহজেই তৈরি করে ফেলা যায় সুস্বাদু ডিমের কোরমা। এই রান্না করার জন্য সামান্য কিছু ঘরোয়া উপকরনের প্রয়োজন হয়। সেগুলো আমাদের প্রত্যেকেরই বাড়িতে থাকে। তাই আলাদা করে নতুন কিছু কেনার প্রয়োজন হয় না।

উপকরণঃ

  • হাঁসের ডিম ৭ পিস,
  • সাদা তেল ১০০ গ্রাম,
  • ঘি,
  • ১ কাপ দুধ,
  • পিঁয়াজ ১০০ গ্রাম,
  • রসুন ৬-৮ কোয়া,
  • ছোট এলাচ, 
  • তেজপাতা, 
  • দারচিনি, 
  • লবঙ্গ, 
  • গোলমরিচ,
  • হলুদ গুড়ো,
  • আদা,
  • কাজু বাদাম ও চার মগজ, 
  • লবন ও চিনি,
  • গরম মশলা, 

ডিমের কোর্মা Egg Korma প্রস্তুতিঃ

হাঁসের ডিম-  ডিমের কোরমা হাঁস বা মুরগি যেকোনো ডিমেই বানানো যায়। তবে পোল্ট্রি ডিমের থেকে হাঁসের ডিমের স্বাদ অনেক ভালো। তাই হাঁসের ডিম দিয়ে যদি ডিমের কোরমা বানানো হয় তাহলে তা খেতে খুব ভালো হয়। দোকান থেকে সাত-আটটি বড় বড় সাইজের হাঁসের ডিম কিনে আনতে হবে। এরপর একটি পাত্রে জল দিয়ে হাঁসের ডিম গুলিকে ছেড়ে দিতে হবে। ডিম গুলি যেন অবশ্যই ভালোভাবে ডুবে যায়। নতুবা ডিম সেদ্ধ ভালো হবে না। এরপর পাত্রটিতে সামান্য নুন যোগ করতে হবে। নুন দিলে ডিম সেদ্ধ হলে খোলা ছাড়াতে সুবিধা হয়। এরপর 10 মিনিট মতো ডিম গুলিকে সেদ্ধ করতে হবে।

পিঁয়াজ- ডিমের কোরমা রান্নাতে পিয়াজ একটা গুরুত্বপূর্ণ উপকরণ। সাধানত ৭-৮ টি ডিমের কোরমা রান্না করতে গেলে তিন-চারটি মাঝারি সাইজের পেঁয়াজ নিতে হবে। এর মধ্যে দুটি পিয়াজ সরু সরু করে কুচি করে সাদা তেলে লাল করে ভেজে নিয়ে বেরেস্তা বানিয়ে নিতে হবে। আর অপর দুটি পেঁয়াজ বেটে নিয়ে আদা ও রসুন এর সাথে কড়াতে দিতে হবে। আবার অনেকে এই পিয়াজ বাটা ব্যবহার না করে সবকটি  পিয়াজ শুরু শুরু করে কেটে নিয়ে তেলে ভেজে রান্না করেন।  

ডিমের কোর্মা Egg Korma প্রনালীঃ

  • Step_1: ডিমের কোরমা করতে গেলে প্রথমে ডিম গুলিকে ভালো করে সেদ্ধ করে নিতে হবে। তারপর ডিমের খোসা ছাড়াতে হবে। খোসা ছাড়ানো হয়ে গেলে ডিম গুলোকে অল্প করে ছুরি দিয়ে ২-৩ টি জায়গায় কেটে নিতে হবে। তারপর একটি পাত্রে ডিম গুলিকে নিয়ে অল্প নুন ও হলুদ মাখিয়ে রাখতে হবে। 
  • Step_2: এরপর কড়াতে ১/২ কাপ সাদা তেল এবং সাদা তেলের সাথে অল্প একটু ঘি মিশিয়ে তেলটাকে গরম করতে হবে। তেল গরম হয়ে গেলে অল্প পরিমাণে শুরু শুরু করে কাটা পিয়াজ গরম তেলে হাল্কা বাদামি রঙের মতো করে ভেজে নিতে হবে। পিঁয়াজ ভাজা হয়ে গেলে একটা ছানচা দিয়ে তেল থেকে পিঁয়াজ ভাজা একটি পাত্রে তুলে রাখতে হবে। 
  • Step_3: তারপর ওই পিঁয়াজ ভাজা তেলে ডিম গুলোকে ভাল করে ভেজে নিতে হবে। একটু লাল হলে তুলে একটি পাত্রে রাখতে হবে। আবার ওই তেলে ছোট এলাচ, তেজপাতা, দারচিনি, লবঙ্গ, গোলমরিচ দিয়ে হালকা করে ভেজে নিতে হবে।
  • Step_4: এরপর কড়াতে রসুন বাটা, পেঁয়াজ বাটা, আদা বাটা দিয়ে ভাল করে কষে নিতে হবে। এখন আগে থেকে ভেজে তুলে রাখা ডিম গুলি কড়াতে দিয়ে দিতে হবে। এবার একটু তেল ছাড়লে ওর ওপর কাজু বাদাম এবং একটু চারমগজ বাটা ও পেঁয়াজ ভাজা প্রভৃতি একসঙ্গে দিয়ে একটু ভালো করে কষে নিয়ে এক কাপ দুধ ও পরিমান মত জল দিতে হবে। 
  • Step_5: এরপর স্বাদ মতো লবন ও মিষ্টি যোগ করতে হবে। যারা ঝাল খেতে পছন্দ করেন তারা লঙ্কা গুঁড়ো দিতে পারেন। সব কিছু মশলা কড়াতে দেওয়া হয়ে গেলে ঢাকা দিয়ে ৫ মিনিট লো ফ্লেমে ফোটাতে হবে।
  • Step_6: এরপর কড়ার ঢাকনা খুলে এক চামচ ঘি ও গরম মশলা দিয়ে সামান্য ফুটিয়ে নিয়ে গ্যাস অফ করে ঢাকা দিয়ে নামিয়ে ফেলতে হবে। এই ভাবে ঘরোয়া পদ্ধতিতে অতি সহজে তৈরী হয়ে গেল ডিমের কোর্মা Egg Korma ।

পরিবেশনঃ 

ডিমের কোরমা গরম গরম ভাত, রুটি, লুচি ইত্যাদির সাথে খেতে ভালো লাগে। এছাড়াও বিভিন্ন চাইনিজ রান্না যেমন ফ্রাইড রাইস, নুডুলস ইত্যাদির সাথে ডিমের কোরমা সাইড ডিস হিসেবে পরিবেশন করা যায়। অনেকে আবার ডিমের কোরমা নান, লাচ্ছা পরোটার সাথে খেতে পছন্দ করেন।

  মোচা দিয়ে মুগের ডাল | Mocha diye Moong Dal

টিপসঃ 

  1. রান্না শেষের দিকে কাজু বাদাম ও চারমগজ দিয়ে বেশিক্ষণ  কষলে খাবারের স্বাদ নষ্ট হয়ে যেতে পারে। তাই কাজু বাদাম ও চারমগজ ও তার সাথে পেঁয়াজের বেরেস্তা ইত্যাদি যোগ করে একটু নাড়াচাড়া করে জল ঢেলে ফুটিয়ে নিতে হবে।
  2. পরিবেশনের আগে ডিমের কোরমা উপরে একটু ধনেপাতা কুচি ও একটু কাচা লঙ্কা কুচি দেয়া যেতে পারে। 

 FAQ: 

 ডিমের কোরমা ও ডিমের কষা রান্না গুলির মধ্যে পার্থক্য কি?

ডিমের কষা ও কোরমা দুটি রান্নাই খেতে খুব ভালো। কিন্তু দুটি রান্নার প্রণালীর মধ্যে বেশ কিছু পার্থক্য আছে। ডিমের কষা এটি মূলত পশ্চিমবঙ্গ ও বাংলাদেশে প্রচলিত। কিন্তু অপরদিকে ডিমের কোর্মা Egg Korma এটি মূলত একটি মুঘোল ঘরানার রান্না।  আর এই কোরমা রান্নাতে কাজুবাদাম, চারমগজ, জয়িত্রী, দুধ ইত্যাদি নানান উপকরণ যোগ করা হয় যা সাধারণত ডিমের কষা ব্যবহার করা হয় না। 

Leave a Comment