mutton curry | রবিবারের স্পেশাল মটন কারি রেসিপি

Mutton Curry

মটন কারি mutton curry । রবি বারের  দুপুরে বাঙালি অন্যতম প্রিয় খাবারের পদ হলো মটন কষা বা কারি, আর না হলে ইলিশ মাছ। কিন্তু ইলিশ মাছটা সারা বছর পাওয়া যায় না। আর পাওয়া গেলেও দাম অনেক বেশি থাকে। তাই ভোজন রসিক বাঙ্গালীর অন্যতম প্রিয় খাবার হল মাটন কারি। পশ্চিম বাংলা বা বাংলাদেশে মটন কারি, কষা নামে পরিচিত। কিন্তু যদি আমরা উত্তর ভারতের দিকে যাই বা দক্ষিণ ভারতে তাহলে ওখানে কিন্তু মাটন কারি নামেই বেশি চলে। যাই হোক খুব সহজেই আমরা আমাদের রান্না ঘরে অত্যন্ত প্রিয় মাটন কারি রান্না করে নিতে পারি।

উপকরণঃ 

  • খাসির মাংস ১ কিলো,
  • পিঁয়াজ ২৫০ গ্রাম,
  • রসুন ৫০ গ্রাম,
  • আদা ১০০ গ্রাম,
  • টক দই ১০০ গ্রাম,
  • সরষের তেল ১০০ গ্রাম,
  • টমাটো ১ টা, 
  • হলুদ গুঁড়ো, 
  • লঙ্কা গুঁড়ো, 
  • জিড়ে গুড়ো,
  • ছোট এলাচ, 
  • দারচিনি ও লবঙ্গ, 
  • গোল মরিচ,
  • শুকনো লঙ্কা,
  • কাজু বাদাম,
  • নুন ও চিনি,
  • কাশ্মীরি লঙ্কা গুঁড়ো ১ চামচ,
  • গরম মশলা এবং ঘি,

মাটন কারি mutton curry প্রস্তুতিঃ

খাসির মাংস-  মটন কারি রান্নার জন্য সাধারণত রেয়াজি খাসির মাংস ব্যবহার করা হয়। কারণ রেয়াজি খাসিতে চর্বি বেশি থাকে। মাংস কষার সময় এই চর্বি গলে গিয়ে রান্নার স্বাদ অনেকটা বাড়িয়ে দেয়। তবে দেশি খাসির একটা অন্য স্বাদ আছে। ছোট সাইজের খাসির মাংস স্বাদে একটা অন্য মাত্রা এনে দেয়। যাই হোক না কেন দোকানে গিয়ে মাংস কেনার সময় একটু সতর্ক ভাবে কিনবেন। অনেক সময় মাংসে চর্বি বেশি দিয়ে দেয়। তাই বেছে বেছে ভালো পায়ের দিকের মাংস কিনবেন। সব থেকে ভালো হয় চোখের সামনে যদি খাসি কেটে মাংস নেওয়া যায়। তাহলে মাংসতে জলের পরিমাণ কম থাকে আর মাংসটা অনেকটা ফ্রেশ হয়। mutton curry

  চিংড়ি মাছের মালাইকারি ও নারকেল দুধ তৈরির পদ্ধতি। Prawn Malai Curry

মাটন কারি mutton curry প্রনালীঃ

  • Step_1: মর্টন কারি বানাতে গেলে প্রথমে খাসির মাংসটাকে ভালো করে ধুয়ে নিতে হবে। তারপর মাংসটাকে ম্যারিনেট করার জন্য একটা বড় বাটিতে আদা বাটা, রসুন বাটা, পেঁয়াজ বাটা, হলুদ গুঁড়ো, লঙ্কা গুঁড়ো, জিড়ে গুড়ো, টক দই প্রভৃতি এই সমস্ত কিছু দিয়ে ম্যারিনেট করে রাখতে হবে।
  • Step_2: এরপর কড়াতে পরিমাণ মতো সরষের তেল দিয়ে তার ওপর  ছোট এলাচ, দারচিনি, লবঙ্গ, গোল মরিচ এক সাথে দিয়ে তার ওপর শুকনো লঙ্কা দিতে হবে। এবার কড়াতে একটু পেঁয়াজ, রসুন কুচি ও একটা টমেটো আধখানা করে  দিয়ে সমস্ত কিছু ভালোভাবে মিশিয়ে নিয়ে নাড়তে হবে।
  • Step_3: তারপর কড়াতে আগে থেকে ম্যারিনেট করা খাসির মাংসটা দিয়ে ভালো করে কষিয়ে নিতে হবে। মাংসটাকে এমন ভাবে কষতে হবে যাতে মাংস সেদ্ধ হয়ে যায় এবং গা থেকে তেল বের হতে থাকে। 
  • Step_4: এভাবে কষা হয়ে গেলে ওর উপর একটু খানি কাজু বাদাম বাটা দিয়ে মাংসটাকে আরেকটু ভালো করে কষিয়ে নিতে হবে। তারপর কড়াতে জল দিয়ে ওর ওপর স্বাদ মত নুন, চিনি ও কালার হওয়ার জন্য সামান্য পরিমাণ কাশ্মীরি লঙ্কাগুঁড়ো দিতে হবে। 
  • Step_5: এভাবে কিছুক্ষণ ফোটাতে হবে। মাংসটাকে আরও কিছুক্ষণ ভাল করে সিদ্ধ করে জলটা একটু শুকনো শুকনো হলে গরম মশলা এবং ঘি দিয়ে মাংসটা নেড়ে চেড়ে গ্যাস বন্ধ করে রাখতে হবে। এভাবে খুব সহজেই তৈরী হওয়া মর্টন কারিটা mutton curry একটা পাত্রে ঢেলে রাখুন। 

পরিবেশনঃ

মটন কারি খুব পরিচিত কমন রান্না। সমস্ত হোটেল রেস্টুরেন্টে পাওয়া যায় মাটন কারি। নান, রুটি, পরোটা, লাচ্ছা পরোটা, ফ্রাইড রাইস ইত্যাদি সবকিছুর সাথে খাওয়া যায়। তবে বাঙালিরা ভাত দিয়ে খাসির মাংস খেতে বেশি পছন্দ করে 

টিপসঃ 

মাটন কারি রান্নার সময় অনেকেই জল কম দিয়ে রান্না করেন। কারণ মাংস কষতে কষতে মাংস থেকে যে জল বের হয় তাতেই রান্না অনেকটা হয়ে যায়। তবে মাংস পরিমানে কম থাকলে সেটাকে  প্রেসার কুকারে একটু সিদ্ধ করে নিয়ে তারপর কড়াতে রান্না করলে সুবিধে হয়। 

  ইলিশ মাছের মাথা দিয়ে কচু শাক | Kochu shak with hilsa fish

FAQ:

 মাটন কারি mutton curry রান্নার সময় ননস্টিক কড়া বা লোহার কড়া কোনটা ব্যবহার করা উচিত?

মটন কারি রান্নার সময় ননস্টিক কড়া বা সাধারণ লোহার কড়া যেকোনো একটাতে রান্না করা যায়। কিন্তু লোহার কড়াতে ভালো করে কষে কষে রান্না করলে মাংসের কালার ও স্বাদ দুটোই ভালো হয়। প্রকৃত মাংস কষে যে কালচে লাল রঙের মটন তৈরি হয়, সেটা লোহার কড়াতেই ভালো হয়।

 

Leave a Comment

Your email address will not be published.

You cannot copy content of this page