চিঁড়ের পোলাও বানাবার পদ্ধতি | Chirer Pulao Recipe

চিঁড়ের পোলাও বানাবার পদ্ধতি

চিঁড়ের পোলাও | গ্রাম বাংলার ঘরে সবাই যেমন ভাত মুড়ি খায়, তেমনিই চিঁড়ে ও মুরকির চলও ঘরে ঘরে পাওয়া যায়। চিড়ে বিভিন্ন ভাবে খাওয়া যায়। যেমন জল দিয়ে বা দুধ দিয়ে চিড়ে ভিজিয়ে খাওয়া যায়। তেমনি চিড়ে ভাজা অর্থাৎ শুকনো খোলাতে চিড়ে হালকা করে ভেজে নিয়ে খাওয়া যেতে পারে। এই চিড়েকেই মুখরোচক ও সুস্বাদু করে চিঁড়ে পোলাও বানানো যায়।

উপকরণঃ

  •  চিঁড়ে ৫০০ গ্রাম
  •  ঘি
  • সাদা তেল 
  •  সবজি
  •  বাদাম
  •  কাজু
  •  কিসমিস
  •  চিনি নুন
  •  হলুদ

চিঁড়ের পোলাও প্রস্তুতিঃ

চিঁড়ে- ভালো ফ্রেশ চিঁড়ে পোলাও এর জন্য দোকান থেকে কিনে আনতে হবে। এবার চিঁড়েতে অনেক সময় ধনের টুকরো বা খোসা, বালি, কাকর ইত্যাদি থাকে।  তাই চিঁড়েটাকে ভালো করে হাত দিয়ে বেছে নিয়ে জল দিয়ে ধুয়ে পরিষ্কার করে নিতে হবে। এবার ভালো করে জল ঝরিয়ে নিয়ে একটা পাত্রে কিছুক্ষণ রেখে দিতে হবে। এর ফলে চিঁড়েটা নরম হবে ও একটু ফুলে উঠবে।

 সবজি-  এই চিঁড়ে পোলাও রান্না করতে বেশ কিছু সবজি লাগে। শীতকালে অনেক রকম সবজি বিক্রি হয়। তার মধ্যে গাজর, বিন, ক্যাপসিকাম, আলু, বরবটি ইত্যাদি সবজি যে গুলো সাধারণত ফ্রাইড রাইস এর ব্যবহার করা হয়, সেই গুলো বাজার থেকে কিনে আনতে হবে। এরপর সবজি গুলোকে ভালো ভাবে ধুয়ে নিয়ে প্রতিটা সবজিই অল্প অল্প করে কুটে নিয়ে একটা বাটিতে রেখে দিতে হবে।

কাজু বাদাম ও কিসমিস- আমরা সবাই জানি কাজু বাদামের দাম খুব বেশি।  কিন্তু পোলাও এমনই একটা রান্না যাতে অল্প হলেও কিছুটা কাজু বাদাম ও কিশমিশ লাগে। কাজু বাদাম ও কিসমিস শুকনো অবস্থায় কড়াতে না দিয়ে একটু ভিজিয়ে নিয়ে কড়াতে দিয়ে ভেজে নেওয়া যেতে পারে।

চিঁড়ের পোলাও প্রণালীঃ

  • Step_1: চিঁড়ের পোলাও করতে প্রথমে চিঁড়েটাকে কিছুক্ষণ ভিজিয়ে রাখতে হবে।
  • Step_2: তারপর সবজি, যেমন গাজর, বিন, আলু, ক্যাপসিকাম, বরবটি প্রভৃতি এই সমস্ত জিনিস সাদা তেলে ভেজে নিন। এবার কড়া থেকে সবজি গুলি তুলে নিয়ে একটা পাত্রে রাখুন।
  • Step_3: এগুলো ভাজা হয়ে গেলে এরপর কড়াতে ঘি, তেজপাতা, ছোট এলাচ, দারচিনি অল্প পরিমাণে কাজু, কিসমিস এই সমস্ত কিছু দিয়ে নেড়ে নিন।
  • Step_4: এবার নড়াচড়া হয়ে গেলে কড়ার উপর জল ঝড়িয়ে রাখা চিঁড়েটা দিয়ে আবার নাড়া চাড়া করুন। তারপর ওর উপর ওই সবজি গুলো দিয়ে দিন। আর উপর থেকে অল্প করে নুন এবং একটু বেশি করে চিনি দিন। এটা একটু মিষ্টি মিষ্টি খেতে ভালো লাগে। তারপর চিঁড়ে পোলাও কড়া থেকে নামিয়ে একটা পাত্রে ঢেলে রাখুন। 

পরিবেশনঃ

এটা যারা নিরামিষ খান বা জলখাবারে সবাই এটা খেতে পারেন। এটা খুবই সুস্বাদু খাবার। চিঁড়ের পোলাও একটা প্লেটে করে পরিবেশন করলে এমনি কোন সাইট দিস ছাড়াই খাওয়া যায়।  তবে কেউ যদি চায়  চিঁড়ের পোলাও এর সাথে আলুর দম বা ফুলকপির তরকারি খাওয়া যেতে পারে। তবে চিঁড়ের পোলাও পুরোপুরি নিরামিষ রান্না হওয়ায়  মাংস বা মাছের সাথে  সাধারণত কেউ খায় না।

  চিংড়ি ভাপা | Chingri bhapa recipe bengali Style

টিপসঃ  

  • চিঁড়ের পোলাও রান্না করার সময় গ্যাস  কমিয়ে লো  ফিল্মে রান্না করা উচিত।  বেশি আগুনে রান্না করলে চিরে পুড়ে যেতে পারে আর খাবারও টেস্টি হবে না।
  • এই রান্নাতে লবণ অন্যন যোগ করার আগে একটু সতর্ক হতে হবে। কারণ সামান্য একটু বেশি নুন হলেই খাবারের স্বাদ নষ্ট হয়ে যাবে তাই খুব সামান্য পরিমাণ স্বাদ অনুযায়ী নন ইউজ করতে হয়। কেউ যদি নন নাও দেয় তাহলে সমস্যা হয় না।  তবে এটা যেহেতু পোলাও তাই একটু মিষ্টি মিষ্টি খেতে ভালো লাগে সেই জন্য একটু বেশি চিনি ব্যবহার করা যেতে পারে।

FAQ:

চিঁড়ের পোলাও ছাড়া  আর কি কি ধরনের পোলাও রান্না হয়?

পোলাও বিভিন্ন ধরনের হতে পারে যেমন ভেজ পোলাও মাটন পোলাও চিংড়ি দিয়ে পোলাও ইত্যাদি।  তবে চিরে পোলাও ছাড়া আর সব পোলাওতে দেরাদুন চাল ব্যবহার করা হয়।  আর আমরা সবাই জানি এই দেরাদুন রাইস এর একটা আলাদা সুন্দর সুগন্ধ থাকে। 

Leave a Comment

Your email address will not be published.

You cannot copy content of this page