Pui shak মাছের তেল কাটা ও মাছের মাথা দিয়ে পুঁইশাক

pui shak কথাতেই আছে মাছের রাজা রুই ও শাকের রাজা পুঁই। আর এই পুইশাকে যদি মাছের তেল কাঁটা যোগ করা হয় তাহোলে স্বাদ অনেকটাই বেড়ে যায়। অনুষ্ঠান বাড়িতে মাছের তেল কাঁটা দিয়ে পুঁইশাক খুব কমন রান্না। 

উপকরনঃ

  • দুটি রুই মাছের মাথা ও তেল কাঁটা,
  • টাটকা পুঁইশাক,
  • সরষের তেল,
  • হলুদ গুঁড়ো, 
  • লঙ্কা গুঁড়ো, 
  • কালো সরষে,
  • আলু, 
  • কুমড়ো,
  • বেগুন,
  • ঝিঙে,
  • লবন,
  • হলুদ,

মাছের মাথা দিয়ে পুঁইশাক pui shak প্রস্তুতিঃ

রুই মাছ- বড় সাইজের দুটি টাটকা রুই মাছ বাজার থেকে কিনে আনতে হবে।  মাছ গুলির ওজন দেড় থেকে দুই কিলো ওজন হলে ভাল হয়। এবার ভাল করে মাছটা আঁশ ছাড়িয়ে নিতে হবে। ছুরি বা বটির সাহায্যে মাছ দুটিকে কেটে নিতে হবে। মাছ কাটার সময় মুড়োতে একটু মাংস রেখে কাটতে হবে। এবার মাছটার মাথা কেটে ২ টুকরো করা হল। মাছের নাড়ি ভুড়ি পরিস্কার করে নেওয়ার সময় লক্ষ্য রাকতে হবে যেন পিত্তি না গলে যায়। এবার নাড়ি ভুড়ি ও মাথার টুকরো গুলি একটা বাটিতে তুলে রাখতে হবে। 

পুঁইশাক- ভাল দ্গা অলা পুঁইশাক দোকান থেকে কিনে আনতে হবে। প্রথমে পাতা গুলোকে কেটে নিয়ে কুচো করে নিতে হবে। তারপর ডটা গুলিকে খোসা ছাড়িয়ে নিয়ে ছোট ছোট টুকরো করে নিতে হবে। এবার ভাল করে বেছে নিয়ে জলে ধুয়ে নিয়ে একটা পাত্রে রাখতে হবে। 

সবজি- সবজি হিসাবে আলু, কুমড়ো, বেগুন, ঝিঙে ইত্যাদি ব্যবহার করা যায়। তবে প্রথমে সবজি গুলি ভাল করে ধুয়ে নিতে হবে। এবার ভাল করে খোসা ছাড়িয়ে নিয়ে ছোট ছোট টুকরো করে নিতে হবে।

মাছের মাথা দিয়ে পুঁইশাক pui shak প্রনালীঃ

  • Step_1: প্রথমে একটি বড় সাইজের রুই মাছ বা কাতলা মাছ ভালো করে বটি দিয়ে কেটে ফেলতে হবে। তারপর সেটিকে জলে ধুয়ে ফেলতে হবে। এরপর মাছের তেল কাটা সমেত মুড়োটাকে নুন হলুদ দিয়ে মাখিয়ে রাখতে হবে। এবার কড়াতে সরষের তেল গরম করে মাছের মাথা গুলি ভাল করে লাল করে ভেজে নিতে হবে।
  • Step_2: অপর দিকে পুঁইশাক টাকে ভালো করে ডাটা সমেত কুচি কুচি করে কেটে নিয়ে জল দিয়ে ধুয়ে ফেলতে হবে। তারপর পুঁইশাকে দেয়ার জন্য নানান রকমের সবজি যেমন আলু, কুমড়ো, বেগুন, ঝিঙে সবকিছু প্রভৃতি দিয়ে একসাথে ধুয়ে রেখে দিতে হবে।
  • Step_3: তারপর গ্যাসে কড়া বসিয়ে সরষের তেল দিয়ে তেল গরম হলে সবজি গুলোকে ভেজে নিতে হবে। এরপর কড়াতে পুঁইশাক দিয়ে ভাল করে নাড়া চাড়া করতে হবে। কড়াতে এবার হলুদ গুঁড়ো, লঙ্কা গুঁড়ো, সরষে বাটা দিয়ে ভাল করে নাড়তে হবে। তারপর জল দিয়ে কিছুক্ষণ চাপা দিয়ে রাখতে হবে।
  • Step_4: এবার সেদ্ধ হয়ে গেলে কড়াটা নামিয়ে ফেলতে হবে। তারপর অন্য ওভেনে কড়াতে তেল গরম করে ওতে পেঁয়াজ কুচি, রসুন কুচি দিয়ে ভাজতে হবে। ভাজা হয়ে গেলে কড়াতে বাটিতে রাখা পুইশাকটা দিয়ে ভালোভাবে নাড়াচাড়া করতে হবে। এবার আগে থেকে ভেজে রাখা মাছের মাথা ভেঙ্গে দিতে হবে। আবার কিছুক্ষণ ফোটাতে হবে এবার মাখো মাখো হয়ে গেলে ওটাকে নামিয়ে ফেলতে হবে। 
  রাইস চিংড়ি বানানোর সেরা পদ্ধতি । Prawn fried rice

পরিবেশনঃ

গরম গরম ভাতের সাথে এই মাছের তেল কাঁটা দিয়ে পুঁইশাক খেতে অসাধারন লাগে। এই রান্না সাধানত অনুষ্ঠান বাড়িতে খাবারের শুরুতেই দেওয়া হয়।

টিপসঃ

মাছের মাথা দিয়ে পুঁইশাক রান্না করার সময় লক্ষ রাখতে হবে মাছটা লোকাল পুরুরের হলে ভাল হয়। অনেক সময় মাছের মাথায় গন্ধ থাকে। তাই ভাল করে ভাজতে হবে। 

অনেকের পুইশাকে এলারজি থাকে। তারা এই রান্না এরিয়ে যেতে পারেন। পুইশাকের এই তরকারিটা বেশ গুরুপাক। তাই তাই যাদের পেটের গন্ডোগোল আছে তারা কম করে খাবেন।

FAQ:

মাছের মাথা দিয়ে আর কি কি রান্না হয়?

পুঁইশাক ছাড়াও মাছের মাথা দিয়ে চচ্চরি, ছেঁচরা ইতিয়াদি রান্না করা যায়। এছাড়া মাছের মাথা দিয়ে মুগের ডাল খুব জনপ্রিয় রান্না।

মাছের মাথা ছাড়া নিরামিশে কি পুঁইশাক রান্না করা যায়?

হা, নিরামিষে পুঁইশাক pui shak রান্না করা যায়। উপকরণ বা রান্নার প্রণালী একই রকম হয়। শুধু মাছ বা পিঁয়াজ ব্যবহার করা হয় না। 

চিংড়ি মাছ দিয়ে কি পুঁইশাক pui shak রান্না করা যায় ?

পুকুরের কুচো চিংড়ি বা দকানের বাগদা চিংড়ি ভাল ভাবে ছাড়িয়ে নিয়ে সরষের তেলে ভ্লো করে ভেজে নিয়ে রান্না করতে হবে। ওর চিংড়ি মাছ জেকোন রান্নার স্বাদ অনেক গুন বাড়িয়ে দেয়। 

Leave a Comment