জি বাংলার ‘মিঠাই’ সৌমিতৃষা কুন্ডু ব্যক্তিগত জীবন, ভালবাসা, সিরিয়ালে অভিনয়

সৌমিতৃষা কুন্ডু (Soumitrisha Kundu) এখন টেলিভিশন সিরিয়ালে অত্যন্ত পরিচিত এক মুখ। বর্তমানে জি বাংলায় সৌমিতৃষা ‘মিঠাই’ সিরিয়ালে মিঠাই এর চরিত্রে অভিনয় করছে। যা দর্শকদের মন জয় করে তুলেছে। মিঠাই সিরিয়ালে সৌমিতৃষা ও অন্যান্য সহ-অভিনেতা অভিনেত্রিরা খুব সুন্দর পারফরম্যান্স করে বর্তমানে সিরিয়ালটিকে এক নম্বরে নিয়ে এসছে।

মিঠাই সিরিয়াল

টিআরপির নিরিখে মিঠাই সিরিয়াল গত বেশ কয়েক সপ্তাহ ধরে এক নম্বরে রয়েছে। অর্থাৎ জি বাংলা মিঠাই সিরিয়াল সব চ্যানেলের সিরিয়ালকে পিছনে ফেলে দিয়েছে। বর্তমানে এই মিঠাই সিরিয়াল এত জনপ্রিয় হয়েছে যে শহরের মিষ্টির দোকানে নতুন করে মনোহরা মিষ্টি বিক্রি হচ্ছে আর তার যথেষ্ট সেল আছে।

‘মিঠাই’ সিরিয়ালে সৌমিতৃষা কুন্ডুর ‘মিঠাই’ এর নাম ভূমিকায় অভিনয় করছে।  সিরিয়ালে মিঠাই চরিত্রটা একজন সাধারণ মিষ্টি বিক্রেতার। গল্পে মিঠাই এর বাড়ি জনাইতে। আর সে রোজ সকালে সাইকেল করে কলকাতার বিভিন্ন বাড়িতে মিষ্টি বিক্রি করত। একদিন এই মিষ্টি বিক্রি করতে করতে সে চলে আসে কলকাতার প্রসিদ্ধ মিষ্টি বিক্রেতা সিদ্ধেশ্বর মোদকের বাড়িতে। এরপরে গল্পে নায়কের এন্ট্রি হয়। গল্পের নায়কের ভূমিকায় অভিনয় করছে আদৃত রায়। আর তার চরিত্রটির নাম সিদ্ধার্থ সংক্ষেপে ‘সিড’। এরপর গল্পে এক অদ্ভুত পরিস্থিতিতে একরকম বাধ্য হয়েই গল্পের নায়ক সিদ্ধার্থ মিঠাই কে বিবাহ করে। কিন্তু কোন সময়ই বিয়ে বা এই ধরনের সামাজিক রিলেশন সিদ্ধার্থ বিশ্বাস করে না।

https://www.instagram.com/p/CPGx1x3h1zr/?utm_source=ig_web_copy_link
credits instagram

মিঠাই সিরিয়ালে মিঠাই যেমন সকলের মন জয় করে, সকলের সাথে মিলেমিশে হাসিখুশি থাকতে ভালোবাসে, ঠিক তেমনি সৌমি। তার সিরিয়ালের মতনই সবাইকে নিয়ে থাকতে পছন্দ করে। স্টুডিওতে হাসি, ঠাট্টা, মজা এই সবকিছু করতে সৌমিতৃষা খুব ভালোবাসে। সৌমিতৃষা ছোট থেকেই খুব মিশুকে প্রকৃতির মেয়ে। মিঠাইের মত সৌমিতৃষা সবকিছু গুছিয়ে রাখতে ভুলে যায়। রিসেন্টলি সৌমিতৃষা কুন্ডু তার শখের আইফোনের হেডফোনটা হারিয়ে ফেলেছে।

সৌমিতৃষা কুন্ডু

সৌমিতৃষা কুন্ডুর বাড়ি পশ্চিমবঙ্গের কলকাতার কাছে বারাসাতে। অভিনেত্রীর জন্ম 2000 সালে। আর তার প্রথম স্কুলজীবন বারাসাতেই কাটে। বারাসাত গার্লস হাই স্কুল থেকে স্কুল এডুকেশন শেষ করেন। এরপর তিনি ভর্তি হন সেন্ট পলস কলেজে। ছোটবেলা থেকেই সৌমিতৃষা ইংরেজিতে খুবই ভালো ছিল, কিন্তু অঙ্কটা অতটা করতে পারতেন না। তাঁর উচ্চতা 5 ফুট ও ওজন 55 কেজি। বর্তমানে অভিনয় ও কাজের সূত্রে সৌমি কলকাতাতেই থাকেন। অভিনয়ে প্রচুর ব্যস্ত হওয়া সত্ত্বেও সৌমিতৃষা DISTANCE LEARNING এর মাধ্যমে পড়াশোনা চালিয়ে যাচ্ছেন।

  পরীমনি সোশ্যাল মিডিয়া ভাইরাল, মদ্যপান, বিতর্ক, মোট সম্পত্তি।
credits instagram

রিসেন্টলি অভিনেত্রী সোশ্যাল নেটওয়ার্কিং সাইডে শুভ্রজিৎ সাহাকে দেখা যায়। এই নিয়ে রীতিমতো শোরগোল পড়ে যায় নিটিজেনদের মধ্যে। তাহলে কি সৌমি সত্যিই প্রেম করছে? সবাইকার মনে একটাই প্রশ্ন ঘুরতে থাকে। সৌমি ও শুভ্রজিতের রিলেশন নিয়ে রীতিমতো কানাঘুষা শুরু হয়ে যায় ইন্ডাস্ট্রিতে। এব্যাপারে সৌমিতৃষাকে জিজ্ঞেস করলে সৌমি পরিষ্কার জানিয়ে দিয়েছে যে তিনি সিঙ্গেলই আছেন। অর্থাৎ শুভ্রজিৎ তার শুধুমাত্র ভালো বন্ধু। এমনিতেই সৌমিতৃষার বন্ধু সংখ্যা খুব কম। তাদের মধ্যে কয়েকজন হল সায়ক, প্রিয়াঙ্কা ও শুভ্রজিৎ।  অভিনেত্রীর মতে, ‘আমি হুট করে প্রেমে পড়ব না। আমার কাছে প্রেম মানে হল সেই মানুষটাকে সবার আগে ভালো করে বোঝা। আর যার সাথে প্রেম করবো তাকেই বিয়ে করবো। আসলে আমার প্রেমের ধারণাটা একটু আলাদা বা বলা যেতে পারে পুরোনো দিনের মত। যার সাথে প্রেম করব তাকেই জীবনসঙ্গী করব। এই কারণেই হয়তো এখনো সিঙ্গেল আমি’।

সৌমিতৃষা কুন্ডু মিঠাই ছাড়াও আরও বেশ কিছু সিরিয়ালে অভিনয় করেছে। সেগুলি হল কনে বউ, গুরুদক্ষিণা, গোপাল ভার, জয়কালী কলকাত্তাওয়ালী, অলৌকিক লৌকিক ইত্যাদি। তার প্রিয় অভিনেতা হল রানবির সিং আর অভিনেত্রী আলিয়া ভাট। এছাড়া রং এর মধ্যে সৌমির প্রিয় রঙ হল ইয়েলো ও রেড। এছাড়া সৌমি চাইনিজ খাবার খেতে খুব ভালোবাসে। তাছাড়া সৌমির হবি হল নাচ, অভিনয় ও বেড়ানো।

নুসরত জাহান নারী ক্ষমতায়ন ও আধিকার নিয়ে বিস্ফোরক মন্তব্য করেন

কৃষ্ণকলি চকচকে স্লিভলেস ওয়েস্টার্ন পোশাকে বুকের ক্লিভেজ একদম স্পষ্ট

Leave a Comment