Soyabean Muitha | সম্পূর্ণ নিরামিষ ভাবে বানানো স্বাদে ভরপুর সয়াবিন মুইঠ্যা

Soyabean Muitha নিরামিষে খুব সহজে বানানো যায় সয়াবিন মুইঠ্যা। চিতল মাছের মুইঠ্যা আমরা আমরা সবাই শুনেছি। কিন্তু এটা একদম নিরামিষে বানানো। তবে এর স্বাদ কিন্তু কোন দিক থেকেই কম নয়। 

উপকরণঃ 

  • সয়াবিন ৫০০ গ্রাম
  • টক দই ১০০ গ্রাম
  • আলু ২ টা
  • সাদা তেল ১০০ গ্রাম
  • এলাচ, 
  • লবঙ্গ, 
  • দারচিনি, 
  • জিরে, 
  • তেজপাতা, 
  • শুকনো লঙ্কা
  • আদা বাটা,
  • লঙ্কা বাটা, 
  • টমেটো বাটা, 
  • হলুদ গুঁড়ো, 
  • লঙ্কাগুঁড়ো, 
  • জিরেগুঁড়ো, 
  • ধনেগুঁড়ো, 
  • কাশ্মীরি লঙ্কা

সয়াবিন মুইঠ্যা Soyabean Muitha প্রস্তুতিঃ 

সোয়াবিন- সোয়াবিন মুইঠ্যা বানানোর জন্য অন্যতম প্রধান উপকরণ হল সোয়াবিন। তবে এক্ষেত্রে বড় সাইজের সোয়াবিন না হলেও চলবে। ছোট বা মাঝারি  সাইজের সোয়াবিন হলে কোন সমস্যা নেই। চিতল মাছের মুইঠ্যা যখন রান্না হয় তখন সে ক্ষেত্রে সিদ্ধ করা চিতল মাছ গুলো ভালোভাবে ছাড়িয়ে নিতে হয়। তারপর সেগুলো কে গোল গোল মুঠো আকারে বানাতে হয় এখানে সয়াবিনের ক্ষেত্রেও ওই একই ভাবে সোয়াবিনের পেস্ট মুঠো মুঠো করে গোল গোল করে বানাতে হয়। 

সয়াবিন মুইঠ্যা Soyabean Muitha প্রনালীঃ 

  • Step_1: সয়াবিন মুইঠ্যা বানাতে গেলে প্রথমে সোয়াবিনটাকে Soyabean ভালো করে সেদ্ধ করতে হবে। তারপর একটি মিক্সিং জারে সেটাকে ভালো করে পেষ্ট করতে হবে। সোয়াবিন পেস্টটাকে জার থেকে বের করে একটি বাটিতে রাখতে হবে।
  • Step_2:  তারপর বাটিতে আদা, হলুদ, লঙ্কাগুঁড়ো, জিড়ে গুড়ো, গরম মশলা, চাট মশলা, পরিমান মত নুন ও চিনি দিয়ে ভালো করে মেশানো হল। তারপর সেটিকে হাতের মুঠোয় করে বিলি কেটে রাখা হল। 
  • Step_3: এরপর একটা বাটিতে জল গরম করে মুইঠ্যা গুলো দেওয়া হল। যখন মুইঠ্যা গুলো ভেসে উঠবে, তখন ওগুলোকে তুলে নিতে হবে। এরপর কড়াতে সাদা তেল গরম করে মুইঠ্যা গুলো দিয়ে ভেজে লাল করে তুলে ফেলুন।
  • Step_4: ঐ ভাজা তেলেতে এলাচ, লবঙ্গ, দারচিনি, জিরে, তেজপাতা, শুকনো লঙ্কা এইসব দিয়ে একটু লাল করে ভেজে নিয়ে টুকরো করা আলু গুলো দিয়ে দিন। এরপর আলুটাকে একটু ভাজা হলে তার উপর আদা বাটা, লঙ্কা বাটা, টমেটো বাটা, হলুদ গুঁড়ো, লঙ্কাগুঁড়ো, জিরেগুঁড়ো, ধনেগুঁড়ো, কাশ্মীরি লঙ্কা অল্প পরিমাণে এই সমস্ত কিছু দিয়ে আলু টা ভালো করে কষিয়ে নিতে হবে। 
  • Step_5: আলুটা ভালো করে কষা হয়ে গেলে এরপর একটু টক দই  দিয়ে নাড়তে হবে।  নারা হয়ে গেলে পরিমাণ মতো নুন, পরিমাণ মতো চিনি দিয়ে ১৫ মিনিট ঢাকা দিয়ে দিন।
  • Step_6: এরপর আলু সেদ্ধ হয়ে গেলে, মুইঠ্যা গুলো ওর উপর দিয়ে দিন। তারপর ৫ মিনিট আরেকটু খানি চাপা দিয়ে রেখে দিন। যখন মুইঠ্যা গুলো মাখোমাখো হয়ে গেলে ওর উপর একটু ঘি, গরম মশলা দিয়ে নামিয়ে ফেলুন তৈরি হয়ে গেল সোয়াবিন মুইঠা। 
  মোচার ঘন্ট রান্না | mochar ghonto recipe

পরিবেশনঃ

সোয়াবিন Soyabean মুইঠা খেতে খুব সুস্বাদু। গরম গরম ভাতের সাথে সোয়াবিন মুইঠ্যা খেতে খুব ভালো লাগে। যারা চিতল মাছ খেতে পছন্দ করেন না তারা বিকল্প হিসেবে সোয়াবিন মুইঠ্যা খেতে পারেন। যারা নিরামিষ রান্নার মধ্যে দুর্দান্ত কোন রান্না খুঁজছেন তারা অবশ্যই সোয়াবিন ট্রাই করতে পারেন।

চিতল মাছের মুইঠ্যা রেসিপি | Chital macher muithya | Chital fish

রকমারি পারোটা সহজ উপায়ে তৈরি করে নিন । চট জলদি জলখাবার

টিপসঃ

সোয়াবিন soyabean মুইঠ্যা একটা স্পাইসি রান্না। এই রান্নাতে তেল মশলা বেশি পরিমাণে ব্যবহার করা হয়। তাই যারা স্বাস্থ্য সচেতন তারা রান্না করার সময় কম তেল মশলা ব্যবহার করবেন।  

FAQ: 

সোয়াবিন(soyabean) মুইঠা ও চিতল মাছের মুইঠা মধ্যে পার্থক্য কোথায়?

সোয়াবিন মুইঠা ও চিতল মাছের মুইঠা রান্না করার প্রণালী একই রকম। সোয়াবিনের ক্ষেত্রে সোয়াবিনটাকে সেদ্ধ করে বেটে বেটে ওর সাথে নানা রকম মসলা মিশিয়ে গোল গোল আকারের বানাতে হয়।  চিতল মাছের ক্ষেত্রে একই রকম চিতল মাছ কেটে ওর পিঠের দিক থেকে চামচে করে মাছ বার করে নিয়ে আসতে হয় ও তারপর একই রকম ভাবে বিভিন্ন মসলা মিশিয়ে মুইঠ্যা বানাতে হয়। 

Leave a Comment